Monday, April 14, 2014


চাটখিলে সাংবাদিককে মারধর মোটর সাইকেল, ক্যামেরা ও নগদ টাকা ছিনতাই

চাটখিল (নোয়াখালী) সংবাদদাতা: নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার সাহাপুর এলাকায় একদল সন্ত্রাসী দৈনিক সংবাদ পত্রিকার রামগঞ্জ প্রতিনিধি এমরান হোসেন পাটোওয়ারী ও তার বন্ধু মো: হাসান চৌধুরীকে বেদম মারধর ও গুরুতর জখম করে মোটর সাইকেল, ক্যামেরা, মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাতে গুরুতর আহত অবস্থায় সাংবাদিক ও তার বন্ধুকে চাটখিল থানা পুলিশ ঠাকুর দিঘির পাড় ব্রিজের উত্তরে বাগান থেকে হাত, পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করে চাটখিল সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গুরুতর আহত সাংবাদিক এমরান হোসেন পাটোওয়ারী জানান, শনিবার রাত আনুমানিক ১১টা তিনি তার চাটখিল উপজেলাধীন রামনারায়নপুর গ্রামের ফুফুর বাড়ি থেকে দাওয়াত খেয়ে মোটর সাইকেল যোগে রামগঞ্জ যাওয়ার পথে সাহাপুর মধ্যবাজারে পৌঁছলে চিহ্নিত ক্যাডার ও সন্ত্রাসী মাহবুবুর রহমান ওরপে ফেরাউনের নেতৃত্বে ৬-৭ জনের একদল সন্ত্রাসী অস্ত্রের মুখে তাদের মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে সাহাপুর বাজার থেকে দুই কিলোমিটার দূরে ঠাকুর দিঘির পাড় ব্রিজের উত্তরে
এক নির্জন বাগানে নিয়ে যায়। সেখানে সাংবাদিক এমরান ও তার বন্ধু হাসান চৌধুরীর চোখ, মুখ, হাত, পা বেঁধে বেদম প্রহার করে পুরো শরীর জখম করে, তাদের মোটর সাইকেল, ১টি ক্যামেরা, ৩ সেট মোবাইল ও নগদ সাড়ে তিন হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। খবর পেয়ে সাহাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চৌকিদার ও বাজার প্রহরী মো: আবদুর রহিম ঘটনাস্থলে গিয়ে চাটখিল থানা পুলিশকে খবর দিলে থানার এসআই মিজানুর রহমান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঠাকুর দিঘির পাড় ব্রিজের উত্তরে বাগান থেকে গুরুতর জখম অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে চাটখিল সরকারী হাসপাতালে এনে ভর্তি করে। এ ব্যাপাওে চাটখিল থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এ রির্পোট লিখা পর্যন্ত পুলিশ সাংবাদিকের মোটর সাইকেল, ক্যামেরা ও মোবাইল সেট উদ্ধার করতে পারেনি।